ইরানের সামরিক শক্তিকে সীমাবদ্ধ করলে ক্ষেপণাস্ত্র শক্তি আরোও বাড়বে : সালামি

0
আইআরজিসি‘র ডেপুটি কমান্ডার বিগ্রেডিয়ার জেনারেল হোসেইন সালামি।

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:

ইরানের সামরিক শক্তিকে সীমাবদ্ধ করার চেষ্টা করা হলে ক্ষেপণাস্ত্র শক্তি আরো বৃদ্ধি করা হবে বলে হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেছে তেহরান।

গতকাল (শনিবার) রাতে এক টেলিভিশন সাক্ষাতকারে ইসলামি বিপ্লবী গার্ড বাহিনী বা আইআরজিসি‘র ডেপুটি কমান্ডার বিগ্রেডিয়ার জেনারেল হোসেইন সালামি এ হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেন।

তিনি বলেছেন, পশ্চিমা শক্তিগুলো ইরানের ক্ষেপণাস্ত্র শক্তিকে নিয়ন্ত্রণ করতে চায়। এ অবস্থায় এই কৌশলগত অস্ত্র শক্তিশালী করা ছাড়া তেহরানের আর কোনো উপায় থাকবে না। তিনি আরো বলেন, ইউরোপীয় ইউনিয়নসহ অন্যান্য দেশ যদি ষড়যন্ত্রের মাধ্যমে ইরানের ক্ষেপণাস্ত্র শক্তিকে নিষ্ক্রিয় করার চেষ্টা করে তাহলে  ক্ষেপণাস্ত্র সক্ষমতাকে সীমিত রাখার অবস্থান থেকে সরে আসবে তেহরান।

সালামি বলেন, কারিগরি দিক দিয়ে ক্ষেপণাস্ত্রের পাল্লা, ধ্বংসাত্মক ক্ষমতা এবং উৎক্ষেপণ ব্যবস্থা যেকোনো মাত্রায় শক্তিশালী করার সক্ষমতা ইরানের রয়েছে। কিন্তু তারপরও সুনির্দিষ্ট প্রতিরক্ষা নীতির আওতায় ইরান নিজেই নিজের ক্ষেপণাস্ত্র সক্ষমতাকে একটি নির্দিষ্ট গণ্ডির মধ্যে সীমাবদ্ধ রেখেছে।

আইআরজিসি‘র এই কমান্ডার বলেন, কিন্তু ইরানের দূরপাল্লার ক্ষেপণাস্ত্রগুলোকে নিষ্ক্রিয় করার চেষ্টা হলে সেই গণ্ডি থেকে বেরিয়ে আসতে বাধ্য হবে তেহরান।

জেনারেল সালামি বলেন, “পরিস্থিতির ধরন অনুযায়ী আমরা প্রতিরক্ষা শক্তির দিক দিয়ে নতুন নতুন কৌশল গ্রহণ করব।”

ইউরোপীয় দেশগুলো সম্প্রতি ইরানের সঙ্গে বাণিজ্য করার জন্য নয়া অর্থনৈতিক ব্যবস্থা চালু করার কথা ঘোষণা করেছে। একইসঙ্গে এসব দেশ ইরানকে দূরপাল্লার ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা বন্ধ করার আহ্বান জানিয়েছে। দৃশ্যত সেই আহ্বানের প্রতিক্রিয়া জানাতে গিয়ে এসব কথা বললেন জেনারেল সালামি।

Comments

comments