ছাত্রীর ওড়না টেনে শ্লীলতাহানি করা শিক্ষকের উপর হামলা; ২ ঘন্টা শিক্ষক-শিক্ষিকা অবরুদ্ধ

0

আসিফ হাসান কাজল||

সপ্তম শ্রেণীর ছাত্রীকে শ্রেণী কক্ষে ওড়না টেনে ও শ্লীলতাহানি করার দ্বায়ে মাধ্যমিক বিদ্যালয় শিক্ষক মহসিন আলী বিশ্বাস (৪৬) কে গ্রেফতার করেছে মাগুরা শ্রীপুর থানা পুলিশ।

আজ মঙ্গলবার মাগুরা শ্রীপুর উপজেলার হাট দারিয়াপুর সম্মিলনী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে এই ঘটনা ঘটে। যার সূত্রপাতে আজ সারাদিন দারিয়াপুরে উত্তপ্ত এলাকাবাসী স্কুল প্রধান শিক্ষক ও শিক্ষিকাদেরকে দুই ঘন্টাব্যাপী অবরুদ্ধ করে রেখেছিল। পরে শ্রীপুর উপজেলা ইউ,এন,ও আহসান উল্লাহ শরিফী ও শ্রীপুর থানা পুলিশের উপস্থিতিতে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করা হয়েছে বলে জানান শ্রীপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মাহাবুবুর রহমান জানান।

এই ঘটনায় অভিযুক্ত শিক্ষক মহসীন আলী বিশ্বাস (৪৬) কে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে বলে শ্রীপুর ইউএনও জানিয়েছেন।

স্থানীয় এলাকাবাসী অভিযোগ করে জানায়, এই শিক্ষক একজন বয়স্ক বিবাহিত মানুষ। এ ধরনের শিষ্টাচার বিরুদ্ধ কাজ তার এই প্রথম নয়! এমনও ডজন ডজন কুকর্ম এত দিনে করেছেন। এছাড়াও তার এই কুকর্মের শিকার হওয়ার জন্য অনেক মেয়ে শিক্ষার্থী স্কুল থেকে বিদায় নিয়েছেন।

এই অভিযোগের প্রেক্ষিতে শ্রীপুর থানার ওসি অভিযোগের সত্যতা স্বীকার করে বলেন, এর আগেও তার বিরুদ্ধে একাধিক অভিযোগের প্রেক্ষিতে স্থানীয় সালিস করা হয়েছে। এলাকা জুড়েই সাধারন জনগণের জনরোষে ছড়িয়ে পড়লে অভিযুক্ত শিক্ষকের উপর এলাকাবাসী ও ছাত্র-ছাত্রীরা হামলা করে। হামলা ঠেকাতে গিয়ে প্রধান শিক্ষকসহ অন্তত ৫ শিক্ষক ও শিক্ষিকা আহত হয়।

গুরুতর আহত সহকারী প্রধান শিক্ষক নওয়াবুল ইসলাম ও শিক্ষিকা আরমিন নাহারকে শ্রীপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে বলে মাধ্যমিক স্কুল সূত্রে জানা গিয়েছে।

উক্ত ছাত্রীর সাথে অশালীনতার কারনে আজ সন্ধায় শ্রীপুর থানায় তার বিরুদ্ধে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা হয়েছে বলে পুলিশ সূত্র নিশ্চিত করেছে। বর্তমানে অভিযুক্ত শিক্ষক পুলিশ কাস্টডিতে রয়েছে বলে জানা যায়।

Comments

comments