{{theTime}} |   Fri 19 Jan 2018

ফাঁদ

প্রকাশঃ রবিবার, ১০ ডিসেম্বর ২০১৭    ২৩:৩৩
ওয়াহিদা সুলতানা লাকি

একজন ফেমিনিস্ট হিসেবে আজ যদি পুরুষদের পক্ষে কিছু বলি নারীরা কি খুব বেশী কষ্ট পাবেন?

বিষয়টি আসলে পুরুষদের পক্ষে নয়।মূলতঃ অন্যায়ের বিপক্ষে প্রতিবাদ বা সতর্ক করে দেয়াই মূল উদ্দেশ্য।আমি তো শুধু মাত্র নারীদের নিয়ে লিখি না।সমাজের অসঙ্গতিগুলোও তুলে ধরি আমার অন্যান্য লেখায়।তেমনি এক অসঙ্গতির গল্প বলছি আজ।

ছেলেটি একজন প্রবাসী।দীর্ঘদিন প্রবাস যাপনের একাকিত্বের মাঝে এই ভার্চ্যুয়াল জগৎেই তার পরিচয় ঘটে একটি মেয়ের সাথে।প্রথমটায় হাই, হ্যালো হতে হতে তাদের বন্ডিংটা গিয়ে দাঁড়ায় ভালো বন্ধুত্বে।

শুরুর দিকেই ছেলেটি এক সময় জানতে পারে মেয়েটি বিবাহিতা এবং এক পুত্র সন্তানের জননী।স্বামীর সাথে বোঝা পড়ায় ঘাটতি থাকায় নিগ্রহে কাটে তার একাকিত্বের কাল বেলা।সব দেখে ছেলেটির মায়া হয় মেয়েটির জন্য।একজন অন্য জনের সাথে দিনের সব কথাই শেয়ার করতে করতে বন্ধুত্বটি ভালোবাসার জলে পা ডুবায়।ঘটনার এ পর্যন্ত আমাদের আশপাশে আজকাল অহরহই ঘটে।

আমি এপ্রেশিয়েট করি তাদের যারা সংসার করতে আসে বন্ধুত্বের ভালো বন্ডিং এর মধ্য দিয়ে। যে সব পুরুষ সেকরিফাইস করে একটা বিবাহিতা মেয়ের জীবনকেও।মেয়েটির চোখে তুলে দেয় পুনরায় বেঁচে থাকার রঙ্গিন স্বপ্ন। এর এক পর্যায়ে বিয়েও হয় এবং তারা হ্যাপি কাপল হয়ে মধুর একটা হাসি দিয়ে আমাদের চোখ- প্রাণ জুড়িয়ে দেয়।

কিন্তু আজকের গল্পের মোড় সেদিকে গেলেও আস্তে আস্তে ঘটনার অনাকাঙ্ক্ষিত রূপ প্রকাশ পেতে থাকে।খুব সংক্ষেপে বলে যাচ্ছি।বুঝে নেবার চেষ্টা করবেন প্লিজ! ছেলেটি মেয়েটির ফোন সেটে একটা উইন্ডো সফটওয়ার খুলে। সেটাকে দুজনার সম্মতিতেই ওকে বাটনে ক্লিক করা হয়।প্রযুক্তিতে আমি কাঁচা বলে টার্মগুলো ঠিকমতো বোঝাতে পারছি না।তবে এর সুবিধা হলো এই যে, মেয়েটার ফোনে কি হচ্ছে না হচ্ছে ছেলেটা তা বিদেশে বসেই উইন্ডো ওপেন করলে সব দেখতে পায়।

ছেলেটা মেয়েটাকে শুরুতে ভালো না বাসলেও কথা বলতে বলতে এক পর্যায়ে ভালোবেসে ফেলে।মেয়েটিকে বিয়ের প্রতিশ্রুতী দেয়।এ নিয়ে একদিন সে ভার্চ্যুয়ালের পাতায় স্ট্যাটাস আপলোড করে।ধরে নেয়া যাক, মেয়েটির নাম মনি আর ছেলেটার নাম রনি।রনির স্ট্যাটাস দেখে ফ্রেন্ড লিস্টের একজন তাকে ইনবক্স করে বলে, আপনি যাকে বিয়ে করতে যাচ্ছেন তার কিছু ভিডিও ক্লীপ আমার কাছে আছে দেখুন।রনি ছেলেটার পাঠানো ভিডিও ক্লীপ দেখে থ' হয়ে যায়।জানতে পারে মনি বিদেশে আসার সময় ( অন্য আরেকটি দেশে থাকে মনি) তার দুঃসম্পর্কের এক চাচার সাথে ওই ছেলেটির কাছে এলে ভদ্রলোকের সাথে ওই হোটেলে শারীরিক সম্পর্ক গড়ে তোলে।পরিচিতির এক পর্যায়ে ওই ছেলেটির সাথেও মনি একই কাজ করে।ছেলেটি সেই দৃশ্য গোপনে নিজের ফোনে ধারণ করে রাখে।পরবর্তীতে এই ভিডিও ক্লীপই রনিকে সেন্ড করে সে।

রনি উইন্ডো ওপেন করে দেখে মনি তার সেলফোনেও সেল্ফ সেক্স ভিডিও ধারণ করেছে অনেকগুলো।এগুলো সে কাকে দেয়, কি করে তার কিছুই আমি এখনও জানি না।মনিকে ফোন দিয়ে রনি সব জিজ্ঞাসাবাদ করে এবং ওখানেই ব্রেক আপ হয়।

ঘটনার পর মনি ড্রাগ নিয়ে এডিক্টেড থাকে এবং তার ছেলের মাথা ছুঁয়ে কসম করে রনিকে ভিডিও পাঠায় যে, সে ছেলে সহ সুইসাইড করবে যদি রনি তার লাইফে ব্যাক না করে।বাড়াবাড়ির এক পর্যায়ে রনি মনির স্বল্প মাত্রার কিছু ভিডিও ইউ টিউবে ভাইরাল করে দেয়।স্বল্প মাত্রা বলছি এজন্যই যে ঘটনার তদন্ত শুরু করে আমি যখন রনির কাছে ভিডিও ফুটেজ চাইলাম ১৪ টি ফুটেজের একটি ক্লিক করেই আমি যাস্ট ইয়াক!!! তাই এক্ষেত্রে ভাইরালগুলোকে স্বল্প মাত্রা বলাই বাঞ্চনীয়।

ছেলেটা এখন অদৃশ্য ফাঁদে জড়িয়ে আছে।সে বিয়েতে রাজি না হলে সুইসাইডের হুমকি খাচ্ছে।কিন্তু সবটা জানার পর তার পক্ষে এ বিয়ে করা সম্ভব নয়।ভার্চ্যুয়ালইও সে এখন বন্ধু তালিকার চাপের মুখে।মনি রনির দেশের বাড়িতেও ফোন দিয়ে ঝামেলা সৃষ্টি করেছে।বাড়িতে মুখ দেখাতে লজ্জা পাচ্ছে রনি।রনির জীবন এখন দূর্বিসহ।

সুপ্রিয় পাঠক,এতোগুলো কথা কেন বললাম জানেন? ভার্চ্যুয়ালই বন্ধুত্ব গড়ে তোলা যেমন খুব সহজ; ভালোবাসাটাও তেমনি সহজলভ্য।আর তাই বিপদের ফাঁদ এখন আর গার্লস আই ডি তে ই সীমাবদ্ধ নয়।পায়ে পায়ে তা এগিয়ে গেছে জেন্টস আই ডি তেও।খারাপ ভালোর মিশ্রণেই পৃথিবী।মেয়েরা শক্তিতে পরাজিত হলেও বুদ্ধিতে ধাবমান।সম্মানিত পুরুষ, গুটি কয়েক গুটিবাজ নারীদের জন্য সমস্ত নারীদের কপালে কালিমা লেপে দেবেন না। আমি বলবো, চোখ- কান খোলা রাখুন।সতর্ক থাকুন।বিবেককে বিসর্জন দেবেন না।নারীর কপাল কালিমার জন্য নয়; রাজটিকার।অন্যায়কে ঘৃনা করুন।অন্যায়কারী পুরুষ নাকি নারী সে কথা ভুলে যান।আসুন একটি সুস্থ সমাজের জন্ম দেই।

 

-ওয়াহিদা সুলতানা লাকি
অনলাইন একটিভিস্ট
, ব্লগার- ইস্টিশন
 

ওয়াহিদা সুলতানা লাকি

ওয়াহিদা সুলতানা লাকি

লেখক: লেখক, ব্লগার ও এ্যাকটিভিস্ট

সম্পাদক

কাজী এম আনিছুল ইসলাম

ভারপ্রাপ্ত প্রকাশক

মোঃ আব্দুল হামিদ

আমাদের সাথে থাকুন
সদ্য সংবাদ