{{theTime}} |   Wed 17 Jan 2018

মাগুরায় স্কুল ছাত্রীকে চুল ধরে টেনে চলন্ত ট্রাকের চাপায় পিষ্ট করল ট্রাক চালক

প্রকাশঃ বুধবার, ০৬ ডিসেম্বর ২০১৭    ২৩:৫৬
আসিফ হাসান কাজল, মাগুরা প্রতিনিধি

মাগুরায় সপ্তম শ্রেণীতে পড়ুয়া স্কুলছাত্রী মিনু খাতুনকে (১২) উত্ত্যক্তের পর তার মাথার উপর দিয়ে ট্রাক এর চাকায় পিষ্ট করে হত্যার ঘটনা ঘটেছে। সে সদর উপজেলার রাঘবদাইড় মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে অধ্যায়ন করছিল।

০৬ ডিসেম্বর বুধবার বিকেলে মাগুরা সদর উপজেলার মঘি ইউনিয়নের কামারপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

বেশ কিছুদিন ধরেই সরকারী নির্মান ঠিকাদারী কাজে ব্যাবহৃত ট্রাকের চালক মিনুকে উত্ত্যক্ত করে আসছিল বলে জানায় মিনুর স্কুল সহপাঠী ফাতেমা,এমনকি আজ সকালে স্কুলে পরীক্ষা দিতে যাবার সময় ট্রাক থামিয়ে খারাপ কথা বলেছে ঐ ট্রাক চালক।

পরীক্ষা শেষে বাড়ি ফেরার সময় উক্ত ট্রাক চালক রাস্তায় তাদেরকে আবারো উত্যক্ত করতে থাকে, সে চলন্ত অবস্থায় এক হাতে মিনু খাতুনের চুল ধরে ও অপর হাত দিয়ে স্টিয়ারিং ধরে ট্রাক চালানো শুরু করে। এক পর্যায়ে মিনু রাস্তায় পড়ে গেলে  পিছনের চাকায় পিষ্ট হয় বলে   সহপাঠী ফাতেমার বরাদ দিয়ে জানাই মিনুর ভগ্নিপতি ইউসুফ আলী।

পরে তাকে মাগুরা ২৫০ শয্যা হাসপাতালে আনা হলে চিকিৎসক মিনু খাতুনকে মৃত ঘোষনা করেন।

রাত ১১টা পর্যন্ত থানায় কেউ এসে অভিযোগ বা মামলা না করায় ঘাতক ট্রাক চালককে গ্রেপ্তার করা যায়নি!

এই ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে মাগুরা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ইলিয়াস হোসেন জানায়, এই ঘটনায় থানায় কেউ আসেনি মেয়ের পরিবারের পক্ষ থেকে। তাই কোন অভিযোগ বা মামলা না হওয়ায় কাউকেই গ্রেপ্তার করা যায়নি।

মাগুরা জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার তরিকুল ইসলামের সাথে এই ব্যাপারে কথা বললে তিনি জানান, ঘটনা স্থান থেকে ট্রাকটি জব্দ করে থানায় আনা হয়েছে। কোন ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান কাজ করছিল বা চালকের নাম জানতে চাওয়া হলে তিনি বলেন, তাদের ব্যাপারে খোঁজ চলছে। তবে এখন পর্যন্ত এদের ব্যাপারে কোন তথ্য তাদের কাছে নেই।

এই ব্যাপারে কি সরকার কর্তৃক কোন মামলা দেওয়া সম্ভব এই প্রশ্নে তিনি হ্যা সূচক ও জবাব দিয়েছেন।

নিহত স্কুলছাত্রী মিনু খাতুন (১২) শালিখা উপজেলার সর্বসাংধা গ্রামের শহর আলীর মেয়ে। সে সদর উপজেলার লক্ষ্মীপুর গ্রামে ভগ্নিপতির বাড়ি থেকে স্থানীয় পড়ালেখা করছিল বলে জানা যায়।

add.jpg
add.jpg

সম্পাদক

কাজী এম আনিছুল ইসলাম

ভারপ্রাপ্ত প্রকাশক

মোঃ আব্দুল হামিদ

আমাদের সাথে থাকুন
সদ্য সংবাদ